আজ: শনিবার ৭ই বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০শে এপ্রিল ২০১৯ ইং, ১৪ই শাবান ১৪৪০ হিজরী

পরিশ্রমে বুকে চাপ ও ইসিজি

রবিবার, ০৭/০৪/২০১৯ @ ৪:২৫ পূর্বাহ্ণ । স্বাস্থ্য-চিকিৎসা

জনাব আলী, বয়স ৫০ বছর। বুকে ব্যথার জন্য ডাক্তার তাকে ইসিজি করার পরামর্শ দিলেন। ইসিজির রিপোর্ট স্বাভাবিক এলো।

ডাক্তার ডমিপ্রাজল ওষুধ প্রেসক্রাইব করলেন, কিন্তু ২ সপ্তাহ ওষুধ খাওয়ার পরও বুকে ব্যথা ভালো হল না। কিছুদূর হাঁটলেই বুকে ব্যথা হয় ও শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। ওই ডাক্তার হৃদরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে বললেন।

ইসিজির রিপোর্ট স্বাভাবিক থাকলেও হৃদরোগ থাকতে পারে। সাধারণত হার্ট অ্যাটাক বা মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্কশন না হওয়া পর্যন্ত ইসিজিতে কোনো পরিবর্তন আসে না। হার্টের রক্তনালিতে এক বা একাধিক ব্লক থাকলেও ইসিজি স্বাভাবিক হতে পারে। এ রোগীর ইসিজি স্বাভাবিক, বয়স ৪০-এর ওপরে।

বুকে ব্যথা সঙ্গে ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপ আছে। রক্তে কোলেস্টেরলও বেশি। তখন রোগীকে যথাযথভাবে মূল্যায়নের জন্য ইটিটি করা উচিত। তাহলে হার্টের রক্তনালিতে যদি ৭০ শতাংশের বেশি ব্লক থাকে তবে তা ধরা পড়ার সম্ভাবনা বেশি। এছাড়া এ রোগীদের ইকোকার্ডিও গ্রাফি, পেটের আলট্রাসনোগ্রাম, বুকের এক্স-রে ও প্রয়োজনে এনজিওগ্রাম করা উচতি। তবে হার্টের কিছু রোগে ইটিটি করা যায় না।

মহিলাদের পিত্তথলিতে পাথর হলে বুকে ব্যথা হতে পারে। ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ, ভালবুলার হার্ট ডিজিজ, হার্টের মাংসপেশি বড় হয়ে যাওয়া সমস্যায়ও ইসিজি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক আসতে পারে। রোগীকে সঠিক ওষুধ দেয়া হল, ওষুধ খাওয়ার পর বুকের চাপ ব্যথা কমে গেল, রোগী এখন হাঁটতে পারেন।

অধ্যাপক ডা. মো. তৌফিকুর রহমান ফারুক

মেডিসিন ও হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ

মেডিনোভা মেডিকেল

মোবাইল : ০১৭৭৭৭৫১২৫১

কাটাছেঁড়া ছাড়াই পাইলস অপারেশন