আজ: বৃহস্পতিবার ৭ই চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ২১শে মার্চ ২০১৯ ইং, ১৩ই রজব ১৪৪০ হিজরী

হাকিমপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে হারুনকে দেখতে চায় এলাকাবাসী

রবিবার, ০৬/০১/২০১৯ @ ১২:৩৩ অপরাহ্ণ । জনপদের খবর

হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই নির্বাচন কমিশন আগামী ফেত্রুয়ারী মাসে উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করবে এমন সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশের পর দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার ভোটারদের আগ্রহ বাড়ছে। বিশেষ করে নবীণদের নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মাঝে সাড়া ফেলেছে ব্যাপক ভাবে। চায়ের দোকান, পাড়া মহল্লা, মাঠঘাট, হাটবাজার সর্বত্র সাধারণ মানুষের মাঝে চলছে সরগরম আলোচনা।
এ আলোচনায় এগিয়ে রয়েছেন এফবিসিআই ঢাকার সদস্য, দিনাজপুর চেম্বার আব কমাস এন্ড ইন্ডাষ্টিজ এর পরিচালক, হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি, হাকিমপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ত্যাগী-নিবেদিত প্রাণ হারুন-উর-রশিদ।
এলাকাবাসির মতে, দলমত নির্বিশেষে হাকিমপুর উপজেলার সাধারণ মানুষ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় হারুন-উর-রশিদকে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাধারণ মানুষের মধ্যে তার আকাশচুম্বি যে জনপ্রিয়তা রয়েছে তাতে তাকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিলে তার বিজয়ী হওয়া প্রায় সুনিশ্চিত।
প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তিনি থেকেছেন সামনের সারিতে। দিয়েছেন সফল নেতৃত্ব। দল ও জনগণের অধিকার রক্ষায় তিনি একজন নিবেদিতপ্রাণ। জনবান্ধব এবং পরীক্ষিত ও লড়াকু সৈনিক। প্রচলিত রাজনৈতিক ধারায় থাকলেও লোভ লালসার স্রোতে গা ভাসাননি তিনি। তৃণমুল নেতাকর্মিদের সঙ্গে থেকে এখনও সাধারণ মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন। হারুন-উর-রশিদ বর্তমান সরকারের উন্নয়ন ধারাকে এগিয়ে নিতে ঐক্যবদ্ধ সাধারণ মানুষকে নিয়ে নিরলস ভাবে কাজ করতে চান।
বোয়ালদাড় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম বলেন, উপজেলার যেখানেই তিনি যান সেখানেই সাধারণ নেতাকর্মীদের মাঝে মিশে যান। তিনি তাদেরই প্রতিনিধি হিসাবে শোনেন সুখ-দুঃখ ও বঞ্চনার কথা। তৃণমুল নেতাকর্মিরাই তার প্রাণ। সাধারণ লোকের একমাত্র ভরসা তিনি।
এ প্রসঙ্গে হাকিমপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও হাকিমপুর পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত বলেন, হারুন-উর-রশিদ সব সময় দলের নেতাকর্মিদের পাশে ছিলেন এখনো আছেন। একজন পরীক্ষিত নেতা। দলের যে কোন প্রয়োজনে তিনি সব সময় নেতাকর্মিদের পাশে থাকেন,এমন কর্মিবান্ধব নেতা উপজেলার চেয়রম্যন হলে তা হবে দলের নেতাকর্মীদের জন্য বড় পাওয়া।
হাকিমপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা তৌহিদ ইসলাম বলেন, যেকোন রাজনৈতিক বা সামাজিক অনুষ্ঠানে তার উপস্থিতিতে জনস্রোতই প্রমান করে জনপ্রিয়তায় তিনি কতটা এগিয়ে রয়েছেন।
এ প্রতিবেদকরে সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতকারে হারুর-উর-রশিদ হারুন বলেন, প্রতিটি সাধারণ মানুষ নেতাদের কাছে পৌঁছাতে পারেন না। সুবিধাভোগীদের ভিড়ে তাদের দাবির কথা, সুখ-দুঃখের কথা বলার সুযোগ পান না। আমি এসব অবহেলিত নেতাকর্মীদের সঙ্গে থেকেছি এখনও আছি। দায় ও দায়িত্বের পার্থক্য আমি বুঝি। আগামীতে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে দলমত নির্বিশেষে সকলের সেবা করে যেতে চাই। অবহেলিত হাকিমপুর উপজেলার সমস্যাগুলো চিহিৃত করে সমাধন করতে চাই।

ঠাকুরগাঁওয়ের অবহেলিত নারীর ক্ষমতায়নকে শক্তিশালী করতে চায়: লিটা
ঠাকুরগাঁয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘর বাড়িতে অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন