আজ: সোমবার ৯ই বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২শে এপ্রিল ২০১৯ ইং, ১৬ই শাবান ১৪৪০ হিজরী

রশিদ-সেনওয়ারির কাছে সিরিজ হারল বাংলাদেশ

বুধবার, ০৬/০৬/২০১৮ @ ৩:২৩ পূর্বাহ্ণ । খেলাধুলা শীর্ষ খবর

নিউজ ডেস্ক: ভারতের দেরাদুনে বাংলাদেশের দেওয়া ১৩৫ রানের লক্ষ্য মামুলি বানিয়ে ফেলল আফগানিস্তান। মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮.৫ ওভারে পৌছে গেল জয়ের প্রান্তে। প্রথম ম্যাচে ৪৫ রানের হার উপহার দেওয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে হার উপহার দিল টাইগারদের। আফগান বোলার রশিদ খান এবং নবীর কাছে ব্যাট হাতে হেরেছে বাংলাদেশ। আর বল হাতে হেরেছে শাহজাদ-সেনওয়ারির কাছে। তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আফগানরা সিরিজ জয় করে ফেলল। লিখে ফেলল ইহিতাস। টেস্ট খেলুলে দলের বিপক্ষে তারা পরপর চারটি টি২০ সিরিজ জয়ের রেকর্ড গড়ল।

বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রান করে। জবাবে আফগানরা দলীয় ৩৮ রানে ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদকে হারান আবু হায়দারের বলে। এরপর তাদের ৫৭ এবং ৭৯ রানে আরো দুই উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ। কিন্তু প্রথম ম্যাচে দারুণ ইসিংসের পর দ্বিতীয় ম্যাচেরও ৪১বলে ৪৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন সেনওয়ারি। তিনি ১১৫ রানে ফিরে গেলে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে আফগানদের। বাকি পথটা অবশ্য সহজে পেরুয় তারা।

উইকেটে সংখ্যায় জয়ে হিসেবটা ঘ্যান ঘানে লাগলেও রোমাঞ্চকর হতে পারতো ম্যাচটি।কিন্তু রুবেল হোসেনের খরুচে বোলিংয়ে তা হলো না। আফগানদের জিততে শেষ চার ওভারে দরকার ছিল ৩৭ রান। সেখান থেকে ১৭তম ওভারে সাকিব বলে এসে ৮ রান দেন। পরের ওভারে মোসাদ্দেক ৯ রান দিয়ে ফেরান বিপদজ্জনক সেনওয়ারিকে। শেষ দুই ওভারে ২০ রান দরকার ছিল আফগানদের। কিন্তু রুবেল তার ৫ বলেই দিয়ে দেন ওই রান। পাঁচ বলের মধ্যে ছিল একটি ডট। বাকি চার বলে দুটি চার, দুটি ছক্কা খান তিনি।  আফগানরা ৬ উইকেটের বড় জয় তুলে নেয়।

এর আগে বাংলাদেশ তামিমের ৪৮ বলে ৪৩ এবং মুশফিকের ১৮ বলে ২২ ও আবু হায়দারের ১৪ বলে ২১ রানের সুবাদে ১৩৪ রান তোলে। আফগার স্পিনারদের সামনে বাংলাদেশ টাইগাররা দাঁড়াতেই পারেনি। রশিদ খান একাই নিয়েছেন ৪ উইকেট। ৪ ওভারে রান দিয়েছেন মাত্র ১২। এছাড়া নবী ৪ ওভারে ১৯ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট। মুজিব উর রহমান কোন উইকেট না পেলেও ৪ ওভারে দিয়েছেন ১৫ রান। সিরিজের শেষ ম্যাচটি আগামী ৭ জুন রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

ইয়াবার 'চাচা-ভাতিজা' কৌশল
প্রাণঘাতী ক্যান্সার নির্মূল করে যে থেরাপি